পিরোজপুরে চোরাচলানকৃত দেড় কোটি টাকার ভারতীয় কাপড় সহ গ্রেপ্তার-৪ - মঠবাড়িয়ার বার্তা

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Wednesday, December 25, 2019

পিরোজপুরে চোরাচলানকৃত দেড় কোটি টাকার ভারতীয় কাপড় সহ গ্রেপ্তার-৪


মো.বাদল বেপারী, পিরোজপুর : পিরোজপুরে বুধবার ভোর ৪ টার সময় চোরা চালানের মাধ্যমে অবৈধভাবে আনা ৬০ বস্তা ভারতীয় শাড়ী, শাল ও থ্রীপিছ উদ্ধার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে উদ্ধারকৃত এই মালামালের মুল্য আনুমানিক দেড় কোটি টাকা।
পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোঃ হায়াতুল ইসলাম খান বুধবার দুপুরে তার কার্যালয়ের আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংএ জানান, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তার নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অপরাধ ও প্রশাসন মোল্লা আযাদ হোসেন, গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ এ কে এম মিজানুল হক, সাব ইন্সপেক্টর দেলোয়ার হোসেন জসিম সহ অন্যান্য ফোর্সসহ সদর উপজেলার হুলারহাট সংলগ্ন কচা নদীতে ভোরে একটি ট্রলারকে থামার ইঙ্গিত দিলে ট্রলারটি দ্রæত একটি খালে ঢুকে পড়ে এবং ট্রলারে থাকা লোকজন কূলে নেমে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় পুলিশ বাহিনী তাদের ধাওয়া করে চারজনকে আটক করে। আটককৃতরা হলো বড়গুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার নাজেম গোলদারের পুত্র জামাল গোলদার (৫০), বরিশাল জেলার চরমোনাই এলাকার মৃত ইন্তেজ আলী হাওলদারের পুত্র  সেলিম হাওলাদার ( ৫৬ ) একই এলাকার  কালাম খলিফার পুত্র সুরুজ খলিফা( ২৫) এবং ভোলা জেলার লালমোহন উপজেলার পরাজগঞ্জ এলাকার খোকন মিস্ত্রীর পুত্র জুয়েল মিস্ত্রী। পুলিশ এ সময় ৭০ ফুট লম্বা একটি ষ্টীলবডির ট্রলার জব্দ করে।
এসময় ট্রলারে থাকা ৬০ বস্তা ভারতীয় উন্নত মানের শাল, শাড়ী ও থ্রী-পিছ জব্দ করে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে সদর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা রুজুর প্রস্তুতি চলছে বলেও পুলিশ সুপার জানান। পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান আরো জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে  চোরাকারবারীরা ভারতীয় এসব পোষাক চোরাই পথে এনে আর্থিক ভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে বিক্রির জন্য মংলা- হুলারহাট-ঢাকা নৌ-পথে  ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করে থাকে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here