ইন্দুরকানীতে ইউএনও’র মানবিক খাদ্য সহয়তা নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে - মঠবাড়িয়ার বার্তা

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Sunday, March 29, 2020

ইন্দুরকানীতে ইউএনও’র মানবিক খাদ্য সহয়তা নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে


গাজী আবুল কালাম : করোনাভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন দরিদ্রদের ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য পৌঁছে দিলেন পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ। রবিবার উপজেলার পাড়েরহাট ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডের হতদরিদ্রদের বাড়িতে চালের বস্তা নিয়ে হাজির হন এ কর্মকর্তা। তিনি নিজ হাতে গাড়ি থেকে ১০ কেজি চালের বস্তাগুলো বহন করে কর্মহীন দরিদ্রদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেন। এসময় ওই সব বাড়িতে থাকা ব্যক্তিরা অবাক হয়ে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে তাদের বাড়িতে দেখে।
করোনা প্রতিরোধে গত ২৪ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল অফিস আদালতে ছুটি ঘোষণা এবং জণসাধারণকে নিরাপদে নিজ ঘরে অবস্থানের নির্দেশে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা।করোনার সংক্রমন ঠেকাতে দেশে চলমান পরিস্থিতিতে নিম্ম আয়ের মানুষের কষ্ট লাগবে বিনা কাজে অযথা ঘরের বাইরে জনসমাগম রোধে তৎপর প্রশাসন। এমন অবস্থায় বিপাকে পড়েছেন নিম্ন- আয়ের মানুষজন। কাজ না পেয়ে খাদ্যের অভাবে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন তারা।ঠিক সেই সময় খাদ্য সহায়তা নিয়ে অসহায়দের দারে দারে ইন্দুরকানী উপজেলা নিবাহী অফিসার হোসাইন মুহাম্মাদ আল মুজাহিদ। করোনা ভাইরাসের কারোনে কাজ করতে না পারা অসহায়  পরিবারের নিকট খাদ্য সামগ্রী নিয়ে হাজির।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে যখন উপজেলার খেটে খাওয়া পরিবার গুলো চোখে অন্ধকার দেখছে ঠিক তখন উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাদ্য সহয়তানিয়ে হাজির তাদের কাছে। এ যেন প্রচন্ড রোদের মাঝে এক পশলা বৃষ্টি।২৯ মার্চ রবিবার উপজেলার পাড়ের হাট ইউনিয়নে  এইখাদ্য সহয়তা বিরণ করেন এসময় উপজেলা প্রকল্প অফিসার শফিকুল ইসলাম ও পাড়েরহাট ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ছরোয়ার বাবুল উপস্থিত ছিলেন। প্রতিটি অসহায় পরিবারের হাতে যখন খাদ্য সামগ্রী তুলেদেন তখন তাদের চোখে মুখে এক তৃপ্তি হাঁসি ফুটে উঠতে দেখা যায়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ জানান, আমাদের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর নির্দেশনায় আমি কর্মহীন দরিদ্র ব্যক্তিদের ঘরে ঘরে গিয়ে চাল পৌঁছে দিয়েছি। তার নিজস্ব অর্থায়নে প্রেরিত নানা প্রকার সুরক্ষা সরঞ্জাম হাসপাতাল ও জনসাধারনের মাঝে বিতরণ করেছি। যাতে করে কাউকে ঘরের থেকে বের হতে না হয়। তার জন্য যতটা সম্ভব কাজ করছি।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, আজ আমরা পাড়েরহাটের ১৫০ টি পরিবারের মাঝে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করেছি। পত্তাশী ও বালিপাড়ায় চারশত পরিবারের মাঝেও মানবিক খাদ্য সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় চাল বিতরণ করা হবে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here