পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় ঘাট ইজারাদার নিহত - মঠবাড়িয়ার বার্তা

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Sunday, April 26, 2020

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় ঘাট ইজারাদার নিহত


ইন্দুরকানী প্রতিনিধি: পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় আব্দুস সালাম জোমাদ্দার (৬৫) নামে এক এক ঘাট ইজারাদার নিহত হয়েছে। আজ শনিবার বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার কলারন খেয়াঘাট সংলগ্ন প্রধান সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এসময় প্রতিপক্ষের হামলায় নিহতের ছেলে আল আমিন (৩২),আবু বক্কর (৩৫) ও ভাই মিজান জোমাদ্দারও (৪৬) আহত হন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে অহিদুজ্জামান (৩০) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। নিহত ছালাম জোমাদ্দার কলারন-সন্ন্যাসী খেয়া ঘাটের ইজারাদার হিসাবে দীর্ঘদিন ধরে এ ঘাটের খেয়া পরিচালনা করে আসছেন।
নিহতের ছেলে আল আমিন অভিযোগ করে বলেন, তার পিতা ছালাম জোমাদ্দারের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে একই গ্রামের বাবুল জোমাদ্দারের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে কয়েকবার শালিশ বৈঠকও হয়েছে। শনিবার সকালে আমি, ও আমার আব্বা জোমাদ্দারহাটের দিকে যাচ্ছিলাম। এসময় হাট সংলগ্ন কালভাটের কাছে পৌঁছালে বাবুল জোমাদ্দারের নেতৃত্বে সোহরাব, মিরাজ, জসিম, রহমানসহ ১৪/১৫ জন লোক অতর্কিত হামলা চালায়। তাদের দায়ের কোপ ও লাঠির আঘাতে আমার আব্বা গুরুত্বর আহত হন। খবর পেয়ে এসময় আমার চাচা মিজান জোমাদ্দার এবং বড় ভাই আবু বক্কর (৩৮) ছুটে আসেন। এসময় হামলায় আমি, আমার চাচা ও আমার বড় ভাই আহত হই। পরে গুরুত্বর আহত অবস্থায় আব্বাকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখান থেকে দ্রুত খুলনা মেডিকেলে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। এ্যম্বুলেন্সে উঠানোর সময় দুপুর ১টার দিকে আব্বা মারা যান।
ইন্দুরকানী থানার ওসি হাবিবুর রহমান জানান, নিহত ছালাম জোমাদ্দার ও বাবুল জোমাদ্দারদের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরে বাবুল জোমাদ্দার গ্রুপের হামলায় ছালাম জোমাদ্দার গুরুত্বর আহত হলে হাসপাতালে নেয়ার পরে মারা যান। এ ঘটনায় এক জনকে আটক করা হয়েছে। এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here