মঠবাড়িয়ার টিকিকাটায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধি মোকছেদ আলীর বসত ঘর আম্ফানে বিধ্বস্ত - মঠবাড়িয়ার বার্তা

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Sunday, May 24, 2020

মঠবাড়িয়ার টিকিকাটায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধি মোকছেদ আলীর বসত ঘর আম্ফানে বিধ্বস্ত



বার্তা রিপোর্ট : ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তান্ডবে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় ব্যাপক ক্ষতির পাশাপাশি টিকিকাটার বড় শিংগা গ্রামের মোকছেদ আলী হাওলাদার (৬২) এর বসত ঘরটি বিধ্বস্ত হয়েছে। মোকছেদ আলী ওই গ্রামের মৃত. মোহাম্মদ আলী হাওলাদারের ছেলে। তার বসত ঘরে ৯সদস্য বিশিষ্ট পরিবার বসবাস করে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মোকছেদ আলী হাওলাদারের বসত ঘরের ছাউনী টিন অত্যান্ত পুরাতণ ও মরিচা ধরা। টিনের চালা অনেকটাই ঝড়ো বাসাতে উড়ে গেছে। বৃষ্টি রোধের জন্য চালের ওপর পলিথিন বিছিয়ে দিয়াছে। ঘরের খুঁটিগুলো ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে গেছে অনেক আগে। ৯ সদস্য বিশিষ্ট পরিবারটি খুব কষ্টে বসবাস করে আসছে।

মোকছেদ আলী হাওলাদারের ছেলে মো. শাহীন হাওলাদার অভিযোগ করেন,  ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তান্ডবের পর কোন জন প্রতিনিধি তাদের কোন খোঁজ খবর নেয়নি। ঘরের খুঁটিগুলো অনেক আগে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে গেছে। ঘরের ছাউনী টিন অত্যান্ত পুরাতণ ও মরিচা ধরা। তার ওপর ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে টিনের চালা অনেকটাই ঝড়ো বাসাতে উড়ে গেছে। সন্তাদের লেখা-পড়া পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের যাবতীয় খরচ গোছাতে গিয়ে ব্যপক হিমশিম খাচ্ছে। যে কারনে বসত ঘর মেরামত করতে পারেনি। তার পিতার বয়স্ক ভাতাই একমাত্র ভরসা।

এব্যপারে জানতে স্থানীয় (৪নং ওয়ার্ড) ইউপি সদস্য নিরঞ্জন এর কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য করেনি।

তিনি আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারনে কর্মহীন হয়ে পরেছে। সামাজিক কারনে যত্রতত্র কারো কাছে হাত পেতে পারতেছে না। তিনি স্থানীয় চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here